Call us: +88 01779641685

September 13, 2018

১৪ মাসে সর্বনিম্ন অবস্থানে এশিয়ার পুঁজিবাজার

সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চীনা পণ্যে আরও শুল্কারোপের হুমকি দিয়েছেন। এতে বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতির দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যযুদ্ধ আরও তীব্র হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে এশিয়ার পুঁজিবাজারে। গতকাল এ অঞ্চলের শেয়ার সূচক গত ১৪ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন অবস্থানে চলে আসে। খবর রয়টার্স।
জাপান বাদে এশিয়ার প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের শেয়ারবাজারের সার্বিক সূচক দশমিক পাঁচ শতাংশ কমে যায়। ২০১৭ সালের জুলাইয়ের পর এ সূচক পয়েন্ট সর্বনি¤েœ চলে আসে। এর মধ্যে জাপানের নিক্কেই সূচক পয়েন্ট কমেছে দশমিক ২৭ শতাংশ। হংকংয়ের হ্যাংসেং সূচক কমেছে দশমিক ২৯ শতাংশ এবং সাংহাই সূচক কমেছে দশমিক ৩৩ শতাংশ এবং দক্ষিণ কোরিয়ার কেওএসপি সূচক কমেছে দশমিক ১৫ শতাংশ।
এদিকে রুপির দরপতন, তেলের দর বৃদ্ধি ও মার্কিন-চীন শুল্কযুদ্ধের প্রভাবে ভারতের শেয়ারবাজারেও টালমাটাল অবস্থা। গত সোমবার সেনসেক্স ৪৬৭ দশমিক ৬৫ পয়েন্ট পড়ার পরে মঙ্গলবারও তা নেমেছে ৫০৯ পয়েন্ট। দু’দিনের লেনদেনে খুইয়েছে প্রায় হাজার পয়েন্ট। বিনিয়োগকারীরা হারিয়েছেন প্রায় চার লাখ রুপির শেয়ারমূল্য। এ দিন নিফ্?টিও ১৫০ দশমিক ৬০ পয়েন্ট পড়েছে। দিনের শেষে সেনসেক্স ও নিফ্?টি থেমেছে যথাক্রমে ৩৭ হাজার ৪১৩ দশমিক ১৩ এবং ১১ দশমিক ২৮৭ দশমিক ৫০ অঙ্কে। যদিও গতকাল তা কিছুটা ঘুরে দাঁড়িয়েছে।
বিনিয়োগকারীরা চিন্তিত হলেও সূচকের এ পতনকে স্বাগত জানাচ্ছেন ভারতের বিশেষজ্ঞদের অনেকেই। তাদের মতে, গত কয়েক মাসে সূচক যে গতিতে উঠেছে, তাতে কৃত্রিমতা রয়েছে। তাই দীর্ঘ মেয়াদে বৃদ্ধি ধরে রাখতে প্রয়োজন আরও সংশোধন।
যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তিগত আধিপত্য কেড়ে নিতে চায় চীনÑএমন অভিযোগ করে দেশটির ওপর শাস্তিমূলক পদক্ষেপ নেওয়া শুরু করেছে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন। এছাড়া বুদ্ধিবৃত্তিক ও ব্যবসায়িক গুরুত্বপূর্ণ নানা প্রযুক্তি চুরিরও অভিযোগ করা হচ্ছে। এর আওতায় চীনা রফতানি পণ্যে ধারাবাহিকভাবে শুল্কারোপ করে দেশটি। এর ধারাবাহিকতায় চীনের আরও ২০ হাজার কোটি ডলারের রফতানি পণ্যে শুল্কারোপের পরিকল্পনা করছে যুক্তরাষ্ট্র। এসব পণ্যের ওপর ২৫ শতাংশ হারে শুল্কারোপের চিন্তা-ভাবনা করছে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন। যুক্তরাষ্ট্রের শুল্কারোপের পরিকল্পনায় চীনের অন্তত ৪০ শতাংশ পণ্য রয়েছে, যা যুক্তরাষ্ট্রে রফতানি হয়ে থাকে। দেশটিতে চলমান একটি জনমত গ্রহণ প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পরই এ শুল্কারোপের বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে ট্রাম্প প্রশাসন। যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে শুল্কারোপ করলে, সেক্ষেত্রে চীন আরও অন্তত ছয় হাজার কোটি ডলারের মার্কিন পণ্যে শুল্কারোপ করবে বলে পরিকল্পনা করছে। এর প্রভাব পড়েছে বাজারে।




DSE-MOBILE TRADING

DSE-MOBILE TRADING

Dhaka Stock Exchange (DSE) has implemented Centralized Order ...

BO Application

BO APPLICATION

NRBC Bank Securities Limited processes and submits BO Application of its clients ...

No-Image

IPO APPLICATION

NRBC Bank Securities Limited processes and submits IPO application of its clients ...